Breaking News
Home / নারী ও শিশু / ডেঙ্গুঃ মেয়ের মুখ আর দেখা হবে না মায়ের
রুবাইয়া আক্তার। ছবিঃ সংগৃহীত

ডেঙ্গুঃ মেয়ের মুখ আর দেখা হবে না মায়ের

অনলাইন ডেস্ক

মেয়ের চিকিৎসক হওয়ার ইচ্ছাপূরণে সাহিদা বেগম পাড়ি জমান সৌদি আরব। মেয়ে ডাক্তার হয়ে গরিব মানুষের সেবা করবে। কিন্তু স্বপ্নপূরণ হওয়ার আগেই রুবাইয়া আক্তার (১১) ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেল। প্রবাসে থাকায় শেষ বিদায়ে মেয়ের মুখটাও দেখা হলো না মায়ের।

মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার উলাইল ইউনিয়নের সিবরামাপুর গ্রামের স্কুলছাত্রী রুবাইয়া আক্তার (১১) ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

রুবাইয়া শিবালয় উপজেলার উলাইল ইউনিয়নের সিবরামাপুর গ্রামের রশিদের মেয়ে ও স্থানীয় রূপসা ওয়াহেদ আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ট শ্রেণির ছাত্রী।

রুবাইয়ার ছোট মামা ইউনুছ আলী বলেন, আমার ছোট বোন সাহিদা বেগমের সঙ্গে ১৩-১৪ বছর আগে পারিবারিকভাবে একই ইউনিয়নের সিবরামাপুর গ্রামের রশিদের বিয়ে হয়। তাদের ঘরে রুবাইয়ার জন্ম হয়। কয়েক বছর পর রশিদ আবার বিয়ে করায় আমার বোন আমাদের বাড়ি কয়রা গ্রামে চলে আসে।

তিনি আরো বলেন, মেয়েকে মানুষ করতে আমার বোন তিন বছর আগে সৌদি আরবে পাড়ি জমান। কয়েক মাস আগে ছুটিতে আসেন। রুবাইয়া প্রায় বলত আমি বড় হয়ে ডাক্তার হয়ে গ্রামের গরিব মানুষদের বিনা মূল্যে চিকিৎসা করব। সেই আশায় আমার বোন দেশের বাইরে যায়। কিন্তু কী ভাগ্য মেয়ের মৃত দেহটাও দেখতে পারল না।

‘আমার ভাগনির স্বপ্ন কাইরা নিল ডেঙ্গু’।

রুবাইয়ার বড় মামা মো. কুদ্দুছ  বলেন, আমরা আমার বোনকে কী জবাব দেব। কী বলব সাহিদা কে।

কাঁদতে কাঁদতে তিনি বলেন, মোবাইলে রুবাইয়ার মাকে বলেছি মেয়ের কথা। খবর শুনে সে বারবার জ্ঞান হারিয়ে ফেলছে।

তিনি আরো বলেন, আমার বাড়ি কয়রা থেকেই পড়াশোনা করত রুবাইয়া। বৃহস্পতিবার সকালে রুবাইয়ার শরীর খারাপ হলে প্রথমে তাকে শিবালয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ডেঙ্গু শনাক্ত হয়। শুক্রবার দুপুর আড়াইটার দিকে মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা হাসপাতালে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়া হয়। অবস্থা সংকটাপন্ন হলে বিকেল ৩টার দিকে তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়। দ্রুত ঢাকার সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যা ৭টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

রূপসা ওয়াহেদ আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, শনিবার সকাল ১০টার দিকে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে জানাজা শেষে তাকে দাফন করা হয়। ডেঙ্গুতে রুবাইয়ার অকাল মৃত্যুতে স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তার স্মরণে নীরবতা পালনসহ সংক্ষিপ্ত শোকসভাও অনুষ্ঠিত হয়। সূত্রঃ দেশ রূপান্তর

Check Also

ঠাকুরগাঁওয়ে জাতীয় শিশু পুরস্কার প্রতিযোগীতা ২০২১ অনুষ্ঠিত

ঠাকুরগাঁওয়ে জেলা পর্যায়ে জাতীয় শিশু  পুরস্কার প্রতিযোগিতা-২০২১ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ শিশু একাডেমি ঠাকুরগাঁও জেলা শাখার আয়োজনে পরীক্ষণ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *