Breaking News
Home / জাতীয় / পঞ্চগড়ে বঙ্গবন্ধুর শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল

পঞ্চগড়ে বঙ্গবন্ধুর শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল

সুকুমার বাবু দাস,স্টাফ রিপোর্টারঃ
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মতো একজন মহান নেতাকে পেয়ে জাতি হিসেবে আমরা ভাগ্যবান বলে মন্তব্য করেছেন, জাতীয় শ্রমিক লীগ পঞ্চগড় জেলা শাখার, সদস্য সচিব মোঃ নুরুজ্জামান তিনি বলেন, স্বভাবতই বঙ্গবন্ধু একজন অন্যতম নেতা। বঙ্গবন্ধু অসাধারণ নেতা হিসেবে বাঙ্গালী জাতির মুক্তির লড়াইয়ে চিরদিন প্রেরণা জোগাবে। বুধবার (১৮ আগস্ট) পঞ্চগড় জেলা পরিষদ হলরুমে, জাতীয় শ্রমিক লীগ, পঞ্চগড় জেলা শাখার উদ্যোগে ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিবসহ সপরিবারের শহীদদের স্মরণে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পঞ্চগড় জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পঞ্চগড় জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো: আনোয়ার সাদাত সম্রাট, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পঞ্চগড় পৌৱ আওয়ামীলীগের, সভাপতি ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ কাজী আল তারিক আরো উপস্হিত ছিলেন পঞ্চগড় পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম হুমায়ুন কবিরং উজ্জ্বল এবং জাতীয় শ্রমিক লীগ পঞ্চগড় জেলা শাখার সকল সদস্যগণ। এ সময় বক্তব্য রাখেন, পৌৱ আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান , কাজি আল তারিক তিনি বলেন, আগস্ট মাস বাঙালি জাতির কাছে এক বেদনাবিদূর মাস। এ মাসে দেশের স্বাধীনতাকামী মানুষের স্বপ্নদ্রষ্টা জাতির পিতাকে হারিয়েছি আমরা।
বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, বঙ্গবন্ধুর তিন সন্তান, দুই পুত্রবধূ এবং তার অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ স্বজনদেরও হারিয়েছি। আগস্ট বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠপুত্র শেখ কামাল ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছার জন্মমাসও বটে। এছাড়াও ৫, ১৭ ও ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা, সবই একই সূত্রে গাঁথা। তাই আগস্টের শোককে শক্তিতে রূপান্তর করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করতে হবে। এ সময় পৌর আওয়ামীলীগের, সাধারণ সম্পাদক, এস এম হুমায়ুন কবির উজ্জ্বল তিনি বলেন, বাঙালি জাতি হিসেবে আমাদের সবচেয়ে বড় অর্জন আমাদের স্বাধীনতা ও নিজস্ব ভূখণ্ড। বঙ্গবন্ধু, বাঙ্গালী ও বাংলাদেশ একটি অন্যটির পরিপূরক। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের পর মুক্তিযুদ্ধবিরোধী শক্তি দেশকে বিপরীত স্রোতে নিয়ে যেতে চেষ্টা করে। পাকিস্তানি ভাবধারা পুনঃগ্রথিত করার প্রয়াসে রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে পুরনো মূল্যবোধকে পুনরুজ্জীবিত করার অপচেষ্টা চালায়। এ সময় অনুষ্ঠানে মধ্যে বক্তব্য রাখেন- জাতীয় শ্রমিক লীগের পঞ্চগড় জেলা শাখার আহ্বায়ক মোঃ শাহীন রেজা মিয়া ,

সুকুমার বাবু দাস,স্টাফ রিপোর্টারঃ
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মতো একজন মহান নেতাকে পেয়ে জাতি হিসেবে আমরা ভাগ্যবান বলে মন্তব্য করেছেন, জাতীয় শ্রমিক লীগ পঞ্চগড় জেলা শাখার, সদস্য সচিব মোঃ নুরুজ্জামান তিনি বলেন, স্বভাবতই বঙ্গবন্ধু একজন অন্যতম নেতা। বঙ্গবন্ধু অসাধারণ নেতা হিসেবে বাঙ্গালী জাতির মুক্তির লড়াইয়ে চিরদিন প্রেরণা জোগাবে। বুধবার (১৮ আগস্ট) পঞ্চগড় জেলা পরিষদ হলরুমে, জাতীয় শ্রমিক লীগ, পঞ্চগড় জেলা শাখার উদ্যোগে ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিবসহ সপরিবারের শহীদদের স্মরণে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পঞ্চগড় জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পঞ্চগড় জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো: আনোয়ার সাদাত সম্রাট, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পঞ্চগড় পৌৱ আওয়ামীলীগের, সভাপতি ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ কাজী আল তারিক আরো উপস্হিত ছিলেন পঞ্চগড় পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম হুমায়ুন কবিরং উজ্জ্বল এবং জাতীয় শ্রমিক লীগ পঞ্চগড় জেলা শাখার সকল সদস্যগণ। এ সময় বক্তব্য রাখেন, পৌৱ আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান, কাজি আল তারিক তিনি বলেন, আগস্ট মাস বাঙালি জাতির কাছে এক বেদনাবিদূর মাস। এ মাসে দেশের স্বাধীনতাকামী মানুষের স্বপ্নদ্রষ্টা জাতির পিতাকে হারিয়েছি আমরা।
বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, বঙ্গবন্ধুর তিন সন্তান, দুই পুত্রবধূ এবং তার অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ স্বজনদেরও হারিয়েছি। আগস্ট বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠপুত্র শেখ কামাল ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছার জন্মমাসও বটে। এছাড়াও ৫, ১৭ ও ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা, সবই একই সূত্রে গাঁথা। তাই আগস্টের শোককে শক্তিতে রূপান্তর করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করতে হবে। এ সময় পৌর আওয়ামীলীগের, সাধারণ সম্পাদক, এস এম হুমায়ুন কবির উজ্জ্বল তিনি বলেন, বাঙালি জাতি হিসেবে আমাদের সবচেয়ে বড় অর্জন আমাদের স্বাধীনতা ও নিজস্ব ভূখণ্ড। বঙ্গবন্ধু, বাঙ্গালী ও বাংলাদেশ একটি অন্যটির পরিপূরক। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের পর মুক্তিযুদ্ধবিরোধী শক্তি দেশকে বিপরীত স্রোতে নিয়ে যেতে চেষ্টা করে। পাকিস্তানি ভাবধারা পুনঃগ্রথিত করার প্রয়াসে রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে পুরনো মূল্যবোধকে পুনরুজ্জীবিত করার অপচেষ্টা চালায়। এ সময় অনুষ্ঠানে মধ্যে বক্তব্য রাখেন- জাতীয় শ্রমিক লীগের পঞ্চগড় জেলা শাখার আহ্বায়ক মোঃ শাহীন রেজা মিয়া, সদস্য মোঃ লোকমান হোসেন বাবু, মোঃ রাসেল, মো: শাহজাহান প্রমুখ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন শ্রমিক লীগের বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনেৱ নেতৃবৃন্দ।

সদস্য মোঃ লোকমান হোসেন বাবু , মোঃ রাসেল , মো: শাহজাহান প্রমুখ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন শ্রমিক লীগের বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনেৱ নেতৃবৃন্দ।

Check Also

শিক্ষিকা মায়া রানী ঘোষ হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন, আসামি গ্রেফতার

সুজন রাজশাহী প্রতিনিধিঃ রাজশাহী মহানগরীর কুমারপাড়ায় অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষিকা মায়া ঘোষ হত্যার ঘটনায় ঘাতক রাজমিস্ত্রি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *