Breaking News
Home / প্রচ্ছদ / রাজশাহী মেডিকেলে জ্বর-কাশি নিয়ে ভর্তি নওগাঁর যুবকের মৃত্যু

রাজশাহী মেডিকেলে জ্বর-কাশি নিয়ে ভর্তি নওগাঁর যুবকের মৃত্যু

সুজন রাজশাহী প্রতিনিধিঃ

নওগাঁর রাণীনগরে ঢাকা থেকে আসা আল আমিন (২২) নামের এক যুবক করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে বাড়িতে ঢুকতে দেয়নি গ্রামবাসী। অসুস্থ আল আমিন তিনটি হাসপাতাল ঘুরে চিকিৎসা না পেয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে গিয়ে ভর্তি হন। পরে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার রাতে তার মৃত্যু হয়। এছাড়াও আল আমিনের মৃতদেহ গ্রামে নিয়ে গেলেও কোনও লোকজন তার মৃতদেহের কাছে যায়নি।
আল আমিন রাণীনগরের কালীগ্রাম ইউনিয়নের অলংকার দীঘি গ্রামের মকলেছুর রহমানের ছেলে। তিনি ঢাকায় একটি কাপড়ের দোকানে কাজ করতো।
মকলেছুর রহমান বলেন, শুক্রবার রাতে জ্বর আর সর্দি-কাশি নিয়ে ঢাকা থেকে নওগাঁতে আসে আল আমিন। শনিবার সকালে বাড়িতে যাওয়ার সময় করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছে সন্দেহে স্থানীয় মেম্বারসহ গ্রামের লোকজন তাকে বাড়িতে যেতে দেয়নি। বাধ্য হয়ে টেম্পু স্ট্যান্ড থেকে চিকিৎসার জন্য আদমদীঘি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।
মকলেছুর বলেন, আদমদীঘি হাসপাতালে তার চিকিৎসা না করেই ফিরিয়ে দেন চিকিৎসকরা। এরপর আবারও ছেলেকে নিয়ে স্থানীয় কমিউনিটি ক্লিনিকে নিয়ে যায়। এরই মধ্যে স্থানীয়রা বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানালে পরে তার সহযোগিতায় চিকিৎসার জন্য প্রথমে রাণীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা দেখেই হাতে কাগজ ধরিয়ে দিয়ে নওগাঁ সদর আধুনিক হাসপাতালে পাঠায়।
এর পর নওগাঁ হাসপাতালে পৌঁছার পর সেখানেও ভালোভাবে না দেখে রাজশাহী নিয়ে যেতে বলে হাতে আরেকটি কাগজ ধরিয়ে দেয়া হয়। এরপর রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাই। বিকেল ৩টার দিকে হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হয়। কিন্তু ছেলের জ্বর কোনোভাবেই কমছিল না। পরে রাত ৮টার দিকে সে মারা যায়।
নওগাঁ সিভিল সার্জন ডা. আ. ম. আখতারুজ্জামান বলেন, ‘আল আমিনের করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার উপসর্গ ছিল। যেহেতু নওগাঁ সদর আধুনিক হাসপাতালে করোনা ভাইরাস পরীক্ষার কোনও ব্যবস্থা নেই সেহেতু আমরা তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠাই। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।’
রামেক হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস বলেন, শনিবার বিকেল ৩টার দিকে আল আমিন ভর্তি হন। রাত ৮টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। বেশি দিন জ্বর থাকায় ব্রেন ইনফেকশনের কারণে তার মৃত্যু হয়েছে বলে জানান এই মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কর্মকর্তা।

Check Also

ঠাকুরগাঁও জেলার শ্রেষ্ঠ গরু বারাকাত ওজন ১১শ কেজি মূল্য ১৩ লাখ ক্রেতা খুজচ্ছেন খামারি জিল্লুর

গীতি গমন চন্দ্র রায় গীতি,স্টাফ রিপোর্টার ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে ৫ নং সৈয়দপুর ইউনিয়নের থুমনিয়া (সাহাপাড়া)গ্রামের রিয়াজুল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *