Breaking News
Home / প্রচ্ছদ / নিউজ আপডেট / জুরাইনে খাবার হোটেলের মাইকের শব্দে অতিষ্ঠ জনজীবন

জুরাইনে খাবার হোটেলের মাইকের শব্দে অতিষ্ঠ জনজীবন

জুরাইন প্রেসক্লাব : জুরাইনে বিক্রমপুর প্লাজার পাশে জুরাইন হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টের অনুমোদনহীন মাইকের প্রচার প্রচারনায় তীব্র শব্দ দূষণে জন জীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। রেস্টুরেন্টে ক্রেতা আকৃষ্ট করতে রাতদিন চলছে প্রচার প্রচারণা। মাইকের এমন উচ্চ শব্দে জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠলেও রহস্য জনক কারনে প্রশাসন নিরব। এর প্রতিকার চেয়েছে স্থানীয় জনসাধারণ।

তবে প্রশাসন বলছে, কোন রকম অনুমতি ছাড়াই কতিপয় ব্যক্তি তাদের প্রভাব খাটিয়ে শব্দ দূষণ করে যাচ্ছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, জুরাইন রেলগেট এলাকায় বিক্রমপুর প্লাজার পাশে জুরাইন হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্ট নামক এক খাবার হোটেলের বাইরে মাইক লাগিয়ে খাবারের আইটেম উল্লেখ করে উচ্চশব্দে প্রচারনা চালানো হচ্ছে। ফলে এলাকার বাসিন্দাদের রাত দিন সহ্য করতে হচ্ছে এরকম শব্দ দূষণ। এ খাবার হোটেল নতুন চালু হওয়ায় মাইক লাগিয়ে ক্রেতা আকর্ষনের চেষ্টা করছে। আশ-পাশের দোকানী ও অফিসের লোকদের অভিযোগ, অনেকদিন থেকেই জুরাইন হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টের বিভিন্ন খাবারের বিজ্ঞাপন শুনতে শুনতে তাদের কান ঝালাপালা। রেস্টুরেন্টের মালিক প্রভাবশালী হওয়ায় কেউ কথা বলতে সাহস পায়না। কেউ কেউ অনুরোধ করলেও কাজে আসে নাই।

এর পাশেই আরেক প্রভাবশালী ব্যক্তির মালিকানায় জুরাইনের অতি পরিচিত বিক্রমপুর প্লাজা শপিং মল কর্তৃপক্ষও সারাদিন মাইক বাজিয়ে ক্রেতা আকৃষ্ট করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

পথচারী বাবলু মিয়া জানান, এমনিতেই জুরাইন মোঢ় একটি ব্যস্ততম এলাকা। ঢাকা-মাওয়া মহাসড়ক ও বাস স্ট্যান্ড হওয়ায় সারাদিন গাড়ির হর্ণের শব্দ তার উপর এমন মাইকের শব্দ অসহনীয় মাত্রায় শব্দ দূষণ করছে। এমন অবস্থা চলতে থাকলে আশপাশের মানুষ অসুস্থ্য হয়ে যাবে।

এবিষয়ে শ্যামপুরে জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার শাহ আলম বলেন, জুরাইন এলাকায় মাইক বাজানোর জন্য কেউ প্রশাসনের অনুমতি নেয়নি। জনগণের চলাচলে অসুবিধা হলে এসবের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Check Also

ভালুকায় ভূমিদস্যু মনির বাহিনীর হাত থেকে মুক্তি চাই এলাকাবাসী

ভালুকা প্রতিনিধিঃময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ী ইউনিয়নে ভূমিদস্যু মনির হোসেন মনিরবাহিনীর নেতৃত্বে তার সহযোগীদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *