Breaking News
Home / সম্পাদকীয় / ওআইসির সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত….

ওআইসির সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত….

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সিদ্ধান্তকে প্রত্যাখ্যান করে মুসলিম দেশগুলোর বড় সংস্থা অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশন (ওআইসি) জেরুজালেমকে ফিলিস্তিনের রাজধানী ঘোষণা করেছে। গত বুধবার বিশেষ শীর্ষ সম্মেলনের পর ওআইসি এক বিবৃতিতে তাদের এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে।

ওআইসির এই সিদ্ধান্ত সঠিক ও সময়োপযোগী। জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পাশাপাশি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ইসরায়েলের মার্কিন দূতাবাস তেল আবিব থেকে সরিয়ে জেরুজালেমে নিয়ে যাওয়ার নির্দেশও দিয়েছেন। ট্রাম্পের এই সিদ্ধান্তের পর ফিলিস্তিনের পাশাপাশি মুসলিম বিশ্বে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। তারই অংশ হিসেবে বিশেষ শীর্ষ সম্মেলন আহ্বান করা হয়। এই বিশেষ শীর্ষ সম্মেলন থেকে ইসরায়েলি দখলদারির অবসান ঘটাতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ওআইসি।

জেরুজালেম সুদীর্ঘকাল থেকেই আলোচিত একটি নগরী। গবেষকরা মনে করেন, ব্রোঞ্জ যুগ থেকেই এখানে মানুষের বসবাস। পবিত্র এ নগরীর রয়েছে সমৃদ্ধ ইতিহাস। বলা হয়ে থাকে, খ্রিস্টপূর্ব ১০০০ সালে রাজা ডেভিড জেরুজালেম জয় করেছিলেন।
তাঁর ছেলে সলোমন এখানে পবিত্র প্রার্থনালয় নির্মাণ করেন বলে কথিত আছে। খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের কাছেও জেরুজালেম অত্যন্ত পবিত্র শহর। মুসলমানদের ধর্মীয় ইতিহাসেও জেরুজালেম পবিত্র একটি শহর। মক্কা ও মদিনার পর যে আল আকসা মসজিদকে সবচেয়ে পবিত্র স্থান বলে গণ্য করা হয়, সেই মসজিদটিও এখানে অবস্থিত। স্বাভাবিক কারণেই জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার বিষয়টি মুসলিম বিশ্বে ক্ষোভের সৃষ্টি করেছে। এর পরিণাম যে ভয়াবহ হতে পারে, এমন আশঙ্কাও এখন অমূলক নয়।

আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী জেরুজালেম কোনোভাবেই ইসরায়েলের রাজধানী হতে পারে না। মুসলমান, ইহুদি ও খ্রিস্টানÑসবার কাছেই অতি পবিত্র নগরী। ১৯৪৭ সালে যখন জাতিসংঘ তৎকালীন ব্রিটিশ শাসনে থাকা ফিলিস্তিনকে দিনটি পৃথক সত্তায় বিভক্ত করার পরিকল্পনা করে, তখন জেরুজালেম একটি আলাদা রাষ্ট্র হওয়ার কথা। ১৯৪৮ সালে আরব-ইসরায়েল যুদ্ধে শহরটির পশ্চিম অংশ দখল করে নেয় ইসরায়েল। ১৯৬৭ সালে আরব-ইসরায়েল যুদ্ধে পুরো জেরুজালেম চলে যায় ইসরায়েলের দখলে। ১৯৮০ সালে ইসরায়েল জেরুজালেমকে রাজধানী হিসেবে ঘোষণা দিলেও এখন পর্যন্ত তা কার্যকর হয়নি।

সম্প্রতি ডোনাল্ড ট্রাম্পের নতুন করে স্বীকৃতি দেওয়ার ঘোষণায় উত্তেজনা দেখা দিয়েছে মুসলিম বিশ্বে। ওআইসির ঘোষণাপত্রে জেরুজালেমকে ফিলিস্তিনের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিতে সব দেশের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। পাশাপাশি আমেরিকার স্বীকৃতি প্রদানের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসার আহ্বান জানানো হয়েছে। ট্রাম্পের এই ঘোষণাকে সরাসরি ইসরায়েলের পক্ষাবলম্বন হিসেবে বিবেচনা করছে মুসলিম বিশ্ব। ট্রাম্পের এই সিদ্ধান্তের কারণে ভবিষ্যতে অস্থিতিশীলতাও দেখা দিতে পারে। ওআইসির এই সিদ্ধান্তে বাংলাদেশের সমর্থন রয়েছে। আমরা আশা করি, ট্রাম্প প্রশাসন তাদের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করবে।

Check Also

পেঁয়াজের দাম লাগামছাড়া, সমাধান কোথায়?

সম্পাদকীয় হঠাৎ করেই অস্বাভাবিক ভাবে বেড়েছে পেঁয়াজের দাম। কিছুদিন আগে যে পেঁয়াজ ৪৫ থেকে ৫০ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *