Breaking News
Home / জাতীয় / ভোলায় ফেসবুক হ্যাকিং করে যারা নবী সম্পর্কে কূটক্তি করেছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

ভোলায় ফেসবুক হ্যাকিং করে যারা নবী সম্পর্কে কূটক্তি করেছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

ভোলায় ফেসবুক হ্যাকিং করে যারা নবী সম্পর্কে কূটক্তি করেছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ রোববার সন্ধ্যায় গণভবনে যুব লীগের সপ্তম কংগ্রেসকে সামনে রেখে সংগঠনের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠকের শুরুতে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় সাম্প্রতিক ইস্যুর ব্যাপারে বলেন, অন্যায়ভাবে যারা প্রভাব প্রতিপত্তি খাটিয়ে রাতারাতি ধনী হয়েছে। তৃণমূলের সাথে বৈষম্য দূর করতে তাদেরও ছাড় দেয়া হবে না বলেও হুশিয়ারি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভোলার অপ্রীতিকর ঘটনার নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন, একটি বিশেষ শ্রেনী এই পরিস্থিতি সৃষ্টি করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করতে চাইছে। সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরকারের কঠোর অবস্থানে কোন অন্যায়কারীরা এড়াতে পারবে না বলেও জানান সরকার প্রধান।

এর আগে যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. হারুনুর রশীদের নেতৃত্বে প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ শামসুল আবেদীন, শহিদ সেরনিয়াবাত, মজিবুর রহমান চৌধুরী, মো. ফারুক হোসেন, মাহবুবুর রহমান হিরন, আবদুস সাত্তার মাসুদ, অ্যাডভোকেট বেলাল হোসাইন, আলতাব হোসেন বাচ্চু, চয়ন ইসলাম, ড. আহম্মেদ আল কবির, মো. সিরাজুল ইসলাম মোল্লা, আবুল বাশার, মোহাম্মদ আলী খোকন, অধ্যাপক এবিএম আমজাদ হোসেন, আনোয়ারুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার নিখিল গুহ, শাহজাহান ভূইয়া মাখন, অ্যাডভোকেট মোতাহার হোসেন সাজু, ডা. মোখলেছুজ্জামান হিরু, যুগ্ম সম্পাদক মহিউদ্দিন আহম্মেদ মহি, সুব্রত পাল, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম জাহিদ, আমির হোসেন গাজী, মুহা. বদিউল আলম, ফজলুল হক আতিক, আবু আহম্মেদ নাসিম পাভেল, আসাদুল হক, এমরান হোসেন খান ও আজহার উদ্দিন গনভবনে উপস্থিত হয়।

বৈঠকে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও যুবলীগের সাবেক চেয়ারম্যান আমির হোসেন আমু এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের উপস্থিত রয়েছেন।আজ রোববার সন্ধ্যায় গণভবনে যুব লীগের সপ্তম কংগ্রেসকে সামনে রেখে সংগঠনের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠকের শুরুতে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় সাম্প্রতিক ইস্যুর ব্যাপারে বলেন, অন্যায়ভাবে যারা প্রভাব প্রতিপত্তি খাটিয়ে রাতারাতি ধনী হয়েছে। তৃণমূলের সাথে বৈষম্য দূর করতে তাদেরও ছাড় দেয়া হবে না বলেও হুশিয়ারি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভোলার অপ্রীতিকর ঘটনার নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন, একটি বিশেষ শ্রেনী এই পরিস্থিতি সৃষ্টি করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করতে চাইছে। সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরকারের কঠোর অবস্থানে কোন অন্যায়কারীরা এড়াতে পারবে না বলেও জানান সরকার প্রধান।

এর আগে যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. হারুনুর রশীদের নেতৃত্বে প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ শামসুল আবেদীন, শহিদ সেরনিয়াবাত, মজিবুর রহমান চৌধুরী, মো. ফারুক হোসেন, মাহবুবুর রহমান হিরন, আবদুস সাত্তার মাসুদ, অ্যাডভোকেট বেলাল হোসাইন, আলতাব হোসেন বাচ্চু, চয়ন ইসলাম, ড. আহম্মেদ আল কবির, মো. সিরাজুল ইসলাম মোল্লা, আবুল বাশার, মোহাম্মদ আলী খোকন, অধ্যাপক এবিএম আমজাদ হোসেন, আনোয়ারুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার নিখিল গুহ, শাহজাহান ভূইয়া মাখন, অ্যাডভোকেট মোতাহার হোসেন সাজু, ডা. মোখলেছুজ্জামান হিরু, যুগ্ম সম্পাদক মহিউদ্দিন আহম্মেদ মহি, সুব্রত পাল, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম জাহিদ, আমির হোসেন গাজী, মুহা. বদিউল আলম, ফজলুল হক আতিক, আবু আহম্মেদ নাসিম পাভেল, আসাদুল হক, এমরান হোসেন খান ও আজহার উদ্দিন গনভবনে উপস্থিত হয়।

বৈঠকে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও যুবলীগের সাবেক চেয়ারম্যান আমির হোসেন আমু এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের উপস্থিত রয়েছেন।

Check Also

ডিমলায় পরিবার কল্যাণ পরিদর্শকার অবহেলায় শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টারঃ নীলফামারীর ডিমলা পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা অবহেলায় শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার সকালে ঝুনাগাছ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *