Breaking News
Home / অর্থনীতি / অতি পরিচিত একটি গুনী পানিফল…..

অতি পরিচিত একটি গুনী পানিফল…..

বর্তমান সময়ের অতি পরিচিত একটি ফল পানিফল। রাস্তা-ঘাটে, বাজারে সব জায়গায় শীতের মৌসুম আসলেই এই ফল পাওয়া যায়। পানিফল কাঁচা এবং সেদ্ধ দুভাবেই খাওয়া যায়। পানিফলের রয়েছে প্রচুর উপকারিতা। এটি বলকারক। এটি যকৃতের প্রদাহনাশক ও উদরাময় রোগ নিরাময়ক। পানিফল যৌন শক্তিবর্ধক ও ঋতুর আধিক্যজনিত সমস্যায় উপকারী।

পানিফলের পুষ্টিগুণ:
খাদ্যশক্তি- ৬৫ কিলোক্যালরি, জলীয় অংশ- ৮৪.৯ গ্রাম, খনিজ পদার্থ- ০.৯ গ্রাম, খাদ্যশস্য- ১.৬ গ্রাম, আমিষ- ২.৫ গ্রাম, চর্বি- ০.৯ গ্রাম, শর্করা- ১১.৭ গ্রাম, ক্যালসিয়াম- ১০ মিলিগ্রাম, আয়রন- ০.৮ মিলিগ্রাম, ভিটামিন বি১- ০.১৮ মিলিগ্রাম, ভিটামিন বি২- ০.০৫ মিলিগ্রাম, ভিটামিন সি- ১৫ মিলিগ্রাম। এছাড়াও এতে রয়েছে জিঙ্ক, আয়রন, সোডিয়াম, পটাশিয়াম।

অ্যান্টিঅক্সিড্যান্টে ভরপুর পানিফল। অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টি ভাইরাল গুণ রয়েছে এই ফলের। এমনকি অ্যান্টিক্যানসার হিসেবেও কাজ করে পানিফল। বমিভাব, হজমের সমস্যা দূর করতে পানিফলের জুড়ি নেই। অনিদ্রা, দুর্বলতা দূর করতে কাজে দেয় এই ফল। পানিফল ঠাণ্ডা লাগা, সর্দিতেও স্বস্তি দিতে পারে। ব্রঙ্কাইটিস, অ্যানিমিয়া কমাতে পারে এই ফল।

পটাশিয়াম থাকায় রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে ভাল কাজ করে পানিফল। ত্বক উজ্জ্বল আর সতেজ রাখতেও পানিফল অনবদ্য। পটাশিয়াম, জিঙ্ক, ভিটামিন বি, ভিটামিন ই ভরপুর পানিফল চুল ভালো রাখে।

Check Also

নীলফামারীর ডোমারে আগুনে পুড়ে ভিক্ষুকের মৃত্যু

মোঃ মোশফিকুর ইসলাম, নীলফামারীঃ নীলফামারীর ডোমারে ভিক্ষুকের ঝুপড়ি ঘরে আগুন লেগে জবেদা খাতুন (৬৫) নামে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *