Breaking News
Home / আইন ও আদালত / দুবাইয়ে গ্রেফতার হওয়া ব্যক্তি জিসান নয়!

দুবাইয়ে গ্রেফতার হওয়া ব্যক্তি জিসান নয়!

অনলাইন ডেস্ক

গত ৩ অক্টোবর পুলিশ জানিয়েছিল, দুবাই থেকে ইন্টারপোল জানিয়েছে গ্রেফতার করা হয়েছে বাংলাদেশের তালিকাভূক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসানকে। কিন্তু তার গ্রেফতারের ঘটনা নিয়ে এখন উঠেছে নতুন গুঞ্জন। শোনা যাচ্ছে দুবাইয়ে গ্রেফতার হওয়া ঐ ব্যক্তি আসলে জিসান নয়। অপরাধ-সম্পৃক্ততা নিশ্চিত না হওয়ায় ছেড়ে দেওয়া হয়েছে তাকে।

অন্যদিকে আসল জিসান রয়ে গেছে ধরাছোঁয়ার বাইরে। শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসানকে গ্রেফতারের খবর বাংলাদেশকে জানায় দুবাইয়ের ন্যাশনাল সেন্ট্রাল ব্যুরো (এনসিবি)। তারা নানারকম তথ্য-উপাত্ত নিয়ে যাচাই-বাছাই করে এ ব্যাপারে নিশ্চিত হয়েছে। এ পর্যন্ত সব তথ্য বাংলাদেশ পুলিশের কাছে রয়েছে। তবে এরপর আর কিছু ঘটেছে কি না তা আর পুলিশের জানা নেই।

একাধিক সূত্রে জানা যায়, গ্রেফতার ব্যক্তি জিসান নয়, তার ভাই শামীম। পুলিশি তৎপরতার ব্যাপারে জানতে পেরে জিসান আগেই আত্মগোপনে চলে যায়। অবশ্য গ্রেফতার ব্যক্তি যে শামীম তাও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। এ প্রসঙ্গে পুলিশ সদর দপ্তরের দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা বলছেন, গ্রেফতারের দুই মাস আগে থেকেই দুবাই পুলিশের নজরদারিতে ছিল জিসান। এ সময়ে দুই দেশের পুলিশ নানারকম হালনাগাদ তথ্য ও ছবি আদান-প্রদানের মাধ্যমে নিশ্চিত হওয়ার পরই গ্রেফতার করা হয় তাকে।

পুলিশ সূত্র জানায়, ঢাকার আন্ডারওয়ার্ল্ডে আধিপত্য ধরে রাখতে গ্রেফতার যুবলীগ নেতা ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট, ঠিকাদার জি কে শামীমসহ তিনজনকে হত্যার নির্দেশ দিয়েছিল জিসান। সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী অস্ত্রও সরবরাহ করা হয় তার সহযোগীদের। তবে হত্যার আগেই জুলাইয়ের শেষ সপ্তাহে খিলগাঁও থেকে গ্রেফতার করা হয় তাদের।

তারা হলো খান মোহাম্মদ ফয়সাল, জিয়াউল আবেদীন ওরফে জুয়েল ও তার ভাই জাহেদ আল আবেদীন ওরফে রুবেল। এ সময় তাদের কাছে পাওয়া যায় একটি এ কে-২২ রাইফেল, চারটি পিস্তল, একটি রিভলবার ও ৪৭ রাউন্ড গুলি। তাদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদে জিসানের নির্দেশে তিনজনকে হত্যার পরিকল্পনা সম্পর্কে কিছু তথ্য পাওয়া যায়। পরে জুয়েল আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।

এর সূত্র ধরে ডিবিসহ অন্যান্য সংস্থা তদন্ত করে গুরুত্বপূর্ণ আরও তথ্য পায়। উল্লেখ্য, নব্বইয়ের দশকের শেষের দিকে সন্ত্রাসী জিসানের উত্থান হয়। একসময় ঢাকার আন্ডারওয়ার্ল্ডের ত্রাস ছিলেন তিনি। ২০০৩ সালে দুই ডিবি পুলিশ কর্মকর্তা হত্যায় জিসানের নাম এলে ২০০৫ সালে দেশ ছাড়েন জিসান। এরপর থেকে বিদেশে বসেই দেশের আন্ডারওয়ার্ল্ড জগত নিয়ন্ত্রণ করছেন জিসান।

Check Also

সিরাজগঞ্জে পিউরোলাইভ প্রতিষ্ঠানে অর্থ দন্ড

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃসিরাজগঞ্জের রহমতগঞ্জ এলাকার পিউরোলাইভ প্রতিষ্ঠানে ৪০ হাজার টাকা অর্থ দন্ড করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। রবিবার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *