Breaking News
Home / অপরাধ / ধামরাইয়ে এক ভুয়া পুলিশ আটক।

ধামরাইয়ে এক ভুয়া পুলিশ আটক।

স্টাফ রিপোর্টারঃঢাকার ধামরাই পৌরসভার বরাতনগর এলাকায় পুলিশ পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন লোককে জিম্মি করে চাকরি দেওয়ার কথা বলে টাকা নেওয়ার সময় হাতে নাতে সৈদয় মোরাফ হোসেন (৩৩) নামে এক ভুয়া পুলিশকে আটক করে ধামরাই থানা পুলিশ।
গতকাল সোমবার (৮সেপ্টেম্বর) দিনগত রাত ১০ ঘটিকার সময় পৌর শহরের বরাতনগর এলাকার স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় তাকে আটক করা হয়। আটককৃত মোরাফ হোসেনের বাড়ী মানিকগঞ্জ জেলার ঘিওর থানার হিজুলি গ্রামের সৈদয় আব্দুল খালেকের ছেলে।

এই ব্যাপারে বরাতনগর এলাকার বাসিন্দা মোঃ আনান বলেন, বিগত একমাস আগে মোরাফের ছোট বউ আফরিনা আক্তার ধামরাই রোম আমেরিকা হাসপাতালে চাকরি করত আমার মা সেখানে ডাক্তার দেখাতে যাইতো। সেই সুবাধে তাদের সাথে আমার মায়ের পরিচয় হয়। পরিচয় হওয়ার পর মোরাফ আমাদের বাসায় এসে বলে আদনানের চাকরি দেওয়ার কথা নিয়ে আলোচনা করে। পরে আমার মায়ের কাছে চাকরির বাবদে টাকা চায়। এর পর আমার মা সরল বিশ্বাসে নয় হাজার টাকা দেয়। কিন্তু সেই টাকা সে আর ফিরত দেয় না। চাইলে বলে আপনারা জানেন আমি পুলিশের লোক আমি আপনাদের বিভিন্ন মামলায় দিয়ে দিবো। এই কথা শুনে আমার মা ধামরাই থানার অফিসার ইনচার্জকে (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহাকে বিষয়টি জানান। এর পর গতকাল সন্ধ্যায় মোরাফ হোসেন আমাদের বাসায় এসে চাকরির কথা বলে টাকা দাবি করেন। তখন আমরা তাকে বললাম আপনি কোন থানায় আছেন আপনার কার্ড দেন। পরে ভুয়া পুলিশ মোরাফ একটি বিজিটিং কার্ড দিলে সেখানে তার নামের পরিবর্তে লেখা মীর আশিক হাসান উপ-পুলিশ পরিদর্শক বাংলাদেশ পুলিশ লেখা দেখে আমাদের সন্দেহ হলে থানায় খবর দেয় পরে থানা থেকে পুলিশ এসে তাকে আটক করে নিয়ে যায়।

এই ব্যাপারে ধামরাই থানার উপ-পরিদর্শক (এস আই) মোঃ আনোয়ার হোসেন জানান, পৌর-শহর এলাকায় পুলিশ পরিচয়ে সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে চাকরি দেওয়ার কথা বলে টাকা নেওয়ার সময় হাতে নাতে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসি। আজ সকালে ভুয়া পুলিশ পরিচয়কারীর বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে কোটে প্রেরণ করা হয়েছে।

Check Also

শিক্ষিকা মায়া রানী ঘোষ হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন, আসামি গ্রেফতার

সুজন রাজশাহী প্রতিনিধিঃ রাজশাহী মহানগরীর কুমারপাড়ায় অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষিকা মায়া ঘোষ হত্যার ঘটনায় ঘাতক রাজমিস্ত্রি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *