Home / প্রচ্ছদ / নারায়ণগঞ্জ পশুর হাট নিয়ে কি ভাবছে প্রশাসন?

নারায়ণগঞ্জ পশুর হাট নিয়ে কি ভাবছে প্রশাসন?

মোঃ আরিফুল ইসলাম স্টাফ রিপোর্টার

নারায়ণগঞ্জ করোনাভাইরাস পরিস্থিতির শুরু থেকেই নারায়ণগঞ্জের নাম উঠে এসেছে বার বার। প্রথম করোনা আক্রান্ত শনাক্ত, রেডজোন, করোনার এপিসেন্টারসহ বিভিন্নভাবে উল্লেখ করা হয়েছে এ জেলার পরিস্থিতি। জেলায় ক্রমাগতভাবে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। বর্তমানে এ সংখ্যা ৫ হাজার ছাড়িয়েছে এবং মারা গেছেন ১১৪ জন। এরই মধ্যে শুরু হচ্ছে আসন্ন ঈদুল আযহা উদযাপন প্রস্তুতি। স্বাস্থ্যবিধি মেনে পশুর হাট বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। নারায়ণগঞ্জেও পশুর হাট বসানোর প্রস্তুতি চলছে। তবে করোনার কারণে এবারের পশুর হাটে বিভিন্ন দিকনির্দেশনা থাকবে যা মানতে হবে বলে জানাচ্ছে জেলা প্রশাসন।
প্রতি বছর নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনসহ জেলার ৫ উপজেলার প্রায় দুই শতাধিক স্থায়ী, অস্থায়ী পশুর হাট বসে। তবে করোনার এপিসেন্টার হিসেবে এ বছর পশুর হাট স্থাপনে বিষয়ে রয়েছে বিধি নিষেধ নানা আলোচনা। সূত্রমতে, ইতিমধ্যে অস্থায়ী পশুর হাট বসানোর ক্ষেত্রে উদ্যোগ নিয়েছে জেলা প্রশাসন। স্বাস্থ্যবিধি হাট বসানোর জন্য চলছে প্রস্তুতি।এ বিষয়ে জানতে চাইলে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ সেলিম রেজা বলেন, অস্থায়ী পশুর হাট বসার ক্ষেত্রে সরকারিভাবে কিছু নির্দেশনা এসেছে এবং আরো কিছু নির্দেশনা আসবে। বর্তমানে যে নির্দেশনা রয়েছে সে অনুযায়ী সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করে অস্থায়ী পশুর হাট বসানোর কথা বলা হয়েছে। হ্যান্ড স্যানিটাইজার বা সাবান দিয়ে হাত ধোয়া, মাস্ক ব্যবহার করা, প্রত্যেক ক্রেতা ও বিক্রেতা তিন ফুট দূরত্ব নিশ্চিত করে হাটের কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবেন।
করোনা পরিস্থিতিকে মাথায় রেখে আয়তনে বড় স্থানগুলোতেই হাট বসানোর অনুমতি দেয়া হবে বলে জানালেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক। যাতে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা সম্ভব হয়।
তিনি আরও বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জে পশুর হাট বসানোর প্রস্তুতি চলছে। হাট বসানোর জন্য নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনসহ অন্যান্য স্থান থেকে হাট স্থাপনের জন্য আবেদন করেছেন। আবেদন অনুযায়ী আমরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের প্রস্তাবিত স্থানগুলো পরিদর্শন ও সার্বিক পরিস্থিতে বিষয়ে খোঁজ নিতে বলা হয়েছে। তাদের দেয়া তথ্যের উপর ভিত্তি করে অস্থায়ী পশুর হাট বসানোর ক্ষেত্রে অনুমতি দেয়া হবে।

Check Also

ডিমলায় চেয়ারম্যানের চেষ্টায় পানি বন্দি থেকে বেঁচে গেল হাজারো পরিবার

হাছানুর রহমান -স্টাফ রিপোটারঃ নীলফামারী ডিমলা উপজেলা ৭নং খালিশা চাপানী ইউনিয়ন ১নং ওয়ার্ড ছোটখাতা মধ্য-পাড়া …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *