Breaking News
Home / অপরাধ / নারায়ণগঞ্জ আড়াইহাজার পরকীয়া প্রেমের টানে প্রবাসী স্বামীকে রেখে অন্য ছেলের হাত ধরে চলে যায় মোসুমী আক্তার

নারায়ণগঞ্জ আড়াইহাজার পরকীয়া প্রেমের টানে প্রবাসী স্বামীকে রেখে অন্য ছেলের হাত ধরে চলে যায় মোসুমী আক্তার

স্টাফ রিপোর্টার
নারায়ণগঞ্জ আড়াইহাজার পরকীয়া প্রেমের টানে প্রবাসী স্বামীকে রেখে অন্য ছেলের হাত ধরে চলে মৌসুমী আক্তার যায়,নারায়ণগঞ্জ আড়াইহাজার ঝাউকান্দি গ্রামের, কনে আমি মোসাঃ মৌসুমী আক্তার, বয়স (২৩) পিতাঃ আনোয়ার হোসেন, মাতাঃ মোরশেদা বেগম, ঠিকানা – ঝাউকান্দি, পোঃ কালাপাহাড়িয়া, থানা- আড়াইহাজার, জেলা – নারায়ণগঞ্জ।
পরকীয়া সম্পর্ক না জানার কারণে মেয়েটিকে না পেয়ে তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে খুঁজাখুঁজি শুরু করে।

মেয়েটিকে খুঁজে না পেয়ে তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন আড়াইহাজার একটি ডায়েরি করেন। ডায়েরি করা পরে পুলিশ ঘটনার সত্যতা যাচাই করে জানতে পারে যে একই গ্রামের মেয়ের পাশের বাড়ির ছেলে নাম, গাফফার পিতাঃ জসু মিয়া এক ছেলের সাথে পরকীয়া প্রেম সম্পর্কের কারণে ওই ছেলের হাত ধরে মেয়ে পালিয়ে যায়। ঘটনার সত্যতা যাচাই করে পুলিশ মেয়ের ফ্যামিলি কে চাপ দিলে মেয়ের ফ্যামিলি বলে আমার মেয়ে যা করেছে তার ইচ্ছাকৃতভাবেই করেছে এ ব্যাপারে আমরা কিছু জানিনা তার খুশি আমাদের খুশি। পারে মেয়ের ফ্যামিলি পুলিশ বলে, তাহলে একটি প্রবাসী ছেলের ইনকামের কষ্টের যে ৪ লাখ টাকা এবং সাড়ে চার ভরি স্বর্ণ আপনার মেয়ের হাতে আছে সেগুলো আপনারা ফেরত দিয়ে দিয়েন। পরে এ ব্যাপারে গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে একটি সালিশ বৈঠক হয়। তখন মেয়ের মা ও খালা একটি দুইনাম্বার তালাকনামা তৈরি করে এনে দেয় এতে মেয়ে সঠিক সিগনেচার করেনি। এ সিংনেসার মেয়ের মা, মোরশেদা বেগম এবং তার খালা হনুফা বেগম এ সিগনেচার করেন এরা ছলনা করে দুই নাম্বার তালাকনামা তৈরি করেন এবং তা ছেলের গার্জেন এর কাছে পৌঁছে দেয়। ছেলের গার্জিয়ান দেখে তা সরল মনে বিশ্বাস করেন এবং বলেন ঠিক আছে। এই ঘটনা আমরা ক্রাইম রিপোর্ট 24.com এর সাংবাদিকরা ঘটনার সত্যতা যাচাই করে জানতে পারি তালাকনামা মিথ্যা এবং সঠিক নয় এ তালাকনামায় মেয়ে কোন সিগনেচার করেনি। এই সিগনেচার মেয়ের ফ্যামিলি লোকেরা আত্মীয়স্বজনেরা মিলে তালাকনামা সিগনেচার করেন। পরবর্তীতে এ ব্যাপারে ছেলের পক্ষের লোকেরা থানা তে একটি মামলা করেন। পরে মেয়ের পক্ষের লোকেরা বলে আপনারা থানা তে যে মামলা করেছেন আমাদেরকে একটি আপোষ নামা কপি দিবেন তাদের কথার ভিত্তিতে ছেলের মানসম্মানের দিক চেয়ে তারা একটি আপসনামা কপি তাদের দেয়। তাদের কথা যে মেয়ে স্বামীর সংসার করতে চায় না তাকে তো জোর করে করানো যায়না। কিন্তু পরবর্তীতে দেখা যায় তালাকনামা সঠিক নয় এবং তাদের টাকা ও স্বর্ণ গয়না ফেরত দেয়নি এ ব্যাপারে আড়াইহাজার থানার এ এস আই সায়েদাত কে জানানো হলে তিনি বলেন, ঠিক আছে এ ব্যাপারে আমি আবারও সঠিক তদন্ত করে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে।

Check Also

ডিমলায় পাষোন্ড স্বামির নির্যাতনেে শিকার কাকলী

হাছানুর রহমান স্টাফ রিপোটারঃ নীলফামারীর ডিমলায় ঝুনাগাছ চাপানীতে পারিবারিক সামান্য বিষয়ে তুলকালাম বানিয়ে স্ত্রীকে প্রতিদিন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *