Breaking News
Home / অপরাধ / তানোরে গৃহবধৃকে ধর্ষণ সুটকেস থেকে অভিযুক্ত গ্রেপ্তার সুজন

তানোরে গৃহবধৃকে ধর্ষণ সুটকেস থেকে অভিযুক্ত গ্রেপ্তার সুজন

রাজশাহী প্রতিনিধি :তানোরে গৃহবধুকে ধর্ষণ করে পালিয়ে সুটকেসের ভেতর লুকিয়েও রেহায় পেল না ধর্ষক। অভিযোগ পেয়ে সুটকেসের ভেতর থেকে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এমন চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে তানোর উপজেলার নড়িয়াল গ্রামে।এঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য’র সৃষ্টি হয়েছে। এনিয়ে ভিক্টিম ওই গৃহবধু বাদি হয়ে ১জনকে আসামী করে তানোর থানা একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।আজ বুধবার (৬ এপ্রিল) দুপুরে অভিযুক্তকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। অপর দিকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য (ভিক্টিম) ওই গৃহবধুকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।মামলার বিবরন, পুলিশ ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, তানোর উপজেলার নড়িয়াল গ্রামের নুরনবীর পুত্র হাসান আলী (২৮) একই এলাকার জৈনক ব্যাক্তি’র স্ত্রী (২০) ১ সন্তানের জননীকে দীর্ঘদিন ধরে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো। গত ২ মাস থেকে ওই গৃহবধুর স্বামী সিরাজগঞ্জ এলাকার একটি ইট ভাটায় কর্মরত রয়েছেন। গত মঙ্গলবার বেলা আড়াইটার দিকে প্রচন্ড ঝড় ও বৃষ্টির সময় একা পেয়ে ওই গৃহবধুর বাড়িতে ঢুকে জোর পুর্বক ধর্ষণ করে। এসময় ওই গৃহবধুর ডাক চিৎকার দিলেও ঝড় ও বৃষ্টির কারনে কেউ শুনতে পায়নি বা এগিয়ে আসেনি। শেষে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত।পরে সঙ্গে সঙ্গে ওই গৃহবধু বিষয়টি গ্রামবাসীকে জানায়। খবর পেয়ে পুরো গ্রামের লোকজন অভিযুক্তকে খুজতে থাকা অবস্থা অভিযুক্ত পালিয়ে তার এক আত্নীয়ের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। পরে গ্রামবাসী ৯৯৯ ফোন করলে মুন্ডুমালা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর সাইফুল ইসলাম সংগীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ত তার এক আত্নীয়ের বাড়ির একটি বড় বাকসার ভিতর থেকে আটক করেন।এব্যাপারে গ্রামবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, গত প্রায় ৮মাস আগে একই গ্রামের জৈনক এক ব্যাক্তির স্ত্রীকে একা পেয়ে ধর্ষন করার সময় এই ধর্ষকের লিঙ্গ কেটে নেয়ার চেষ্টা করেছিল। গ্রামবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করে আরো বলেন, অভিযুক্ত হাসান এর আগে একই গ্রামের আরো ৪ গৃহবধুকে ধর্ষণ করেছে। থানায় মামলা না নেয়ায় গ্রামেই সেগুলো ধামা চাপা পড়েছে। অভিযুক্ত হাসানের কারনে এই গ্রামের আরো ২জন গৃহবধুর সংসার ভেঙ্গেছে।মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মুন্ডুমালা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর সাইফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনার পর পালিয়ে লুকিয়ে থাকা বাড়িটি গ্রামবাসী ঘিরে রেখেছিলেন। অভিযুক্ত তার এক আত্নীয়ের বাড়ির বড় সুটকেসের ভিতর থেকে আটক করা থানায় নেয়া হয়।এব্যাপারে তানোর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রাকিবুল হাসান বলেন, এঘটনায় থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দারে করা হয়েছে, অভিযুক্তকে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে জেল হাজতে এবং ভিক্টিম ওই গৃহবধুকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

Check Also

দিনাজপুরে ৩ রোভারের পায়ে হেঁটে ১৫০ কিলোমিটার পরিভ্রমণ

মোঃ মঈন উদ্দীন চিশতী, দিনাজপুরঃ বাংলাদেশ স্কাউটস, দিনাজপুর জেল রোভারের আয়োজনে প্রেসিডেন্ট’স রোভার স্কাউট অ্যাওয়ার্ড …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *